টুম্পা ও আমি

আচ্ছা টুম্পা একটা কথা বলি?
-হুম,
-তোমাকে যদি আমি বলি, তোমাকে আমি ভালবাসি তখন তুমি কি করবা?
.
টুম্পা চানাচুর খাচ্ছিল।ও চানাচুর খাওয়া বন্ধ করে রাগী চোখে আমার দিকে তাকালো।
মনে হচ্ছিলো রাগ হয়ে অনেক কিছু বলবে কিন্তু তার বদলে ও আমার চোখের দিকে তাকিয়ে হেসে ফেলল। তারপর বলল,
-রাজী হয়ে যাবো। তারপর চুটিয়ে প্রেম করব,
-সত্যি?
-হ্যাঁ, সত্যি।
-মজা করতেছ নাকি?
-আরেহ নাহ,
-আচ্ছা,তাহলে আই লাভ ইউ।
-মানে?
-মানে আমি তোমাকে ভালবাসি,,
.
আমার কথা শোনা মাত্রই টুম্পার হাসি হাসি মুখ টা অব্ধকার হয়ে গেল। ও ভেবেছিল আমিও ওর মত মজা করছি, কিন্তু এবারের ব্যাপারটায় আমি সিরিয়াস।খুব সিরিয়াস।
আমি ওকে সত্যিই ভালবাসি।
.
আমি টুম্পার মুখে কঠিন কিছু শোনার জন্য অপেক্ষা করছিলাম তবে ও কিছুই বলল না।
ও ব্রেঞ্চটা থেকে উঠে দাঁড়ালো,তারপর চুপচাপ হেঁটে হেঁটে পার্ক থেকে বের হয়ে গেল।
যাওয়ার সময় মুখ দিয়ে কোন টু শব্দটাও করল না।
.
আমি বসে বসে ওর চলে যাওয়া দেখলাম।
ভালবাসার কথাটা একটু জলদি বলে ফেললাম মনে হচ্ছে।
টুম্পার সাথে আমার পরিচয় চার মাস,একটা উপন্যাস লেখার কোর্স করতে এসে।
অবশ্য চার মাস খুব একটা কম সময় ও না।
.
ঘন্টা খানেক একা একা বসে থেকে আমি বাসার দিকে চললাম।আকাশ মেঘলা হয়ে আসছে,যে কোন সময় বৃষ্টিও নামতে পারে।
বাসায় ফিরে রাত পর্যন্ত টুম্পার কথাই ভাবলাম।তাড়াহুড়া করতে গিয়ে মনে হয় বব্ধুত্ত্বটাও হারালাম।
.
রাতে টুম্পাকে দুই একবার ফোন দিয়ে কথা বলার ও চেষ্টা করলাম। কিন্তু ওর ফোন অফ।
কি করবো ভেবে পেলাম না?
এই অল্পতে ও এত টা রেগে যাবে কে জানত?
অবশ্য রাগ হওয়াটাও স্বাভাবিক ব্যাপার।
ওর সাথে কথা হলে প্রথমে সর‍্যি বলবো এই চিন্তাটাও মাথায় এলো একবার।
.
এর পরের দুদিন টুম্পার সাথে আমার কোন প্রকার যোগাযোগ হলোনা।যোগাযযোগ করার অনেক চেষ্টাই আমি করেছি।
ওর যত বন্ধু বান্ধব কে চিনতাম সবাইকে ফোন করে জিজ্ঞেস কররেছি কারো সাথে কোন কথা হয়েছে কিনা? সবার উত্তরই না।
.
তবে টুম্পার সাথে আমার কথা হলো তৃতীয় দিনের মাথায়।ও নিজে থেকেই কল করলো।
আমি কল ধরতেই ও জিজ্ঞেস করলো,
-তুমি কি সিরিয়াস?
-হ্যাঁ,
-আচ্ছা,,
আমি কিছু বলতে যাবো তার আগেই কলটা কেঁটে গেলো। বুঝলাম টুম্পা কেঁটে দিয়েছি।।
আমি যখন কল ব্যাক করার চেষ্টা করলাম তখন দেখি টুম্পার নাম্বার আবার বন্ধ।
.
এর পর আরো দুদিন টুম্পার সাথে কথা হলোনা।আমার নিজের মধ্য এক প্রকার অস্বস্তি বোধ হওয়া শুরু হলো।
তাই আমি সিদ্ধান্ত নিলাম সোজা আমি টুম্পার বাসায় যাব। গিয়ে ওকে সর‍্যি বলবো।
যেদিন রাতে এমন ভাবছিলাম সেদিন রাত্রে হুট করে আবার টুম্পার ফোন এলো।
ফোন ধরতেই আবারো ওর একই প্রশ্ন,
-তুমি কি সিরিয়াস,
.
আমারো একই উত্তর,
-হ্যা,,
-আচ্ছা,,
এরপর আমি ভেবেছিলাম আগের বারের মত কল কেঁটে দিবে।কিন্তু এবার এমন হলো না।
আমি বললাম,
-কিছু বলো?
-কি?
-মানে,
-আচ্ছা,তুমি আমার প্রেমে পড়ছ সেটা কিভাবে বুঝলা?
-আসলে রোজ তোমাকে স্বপ্নে দেখি,
-ও কি দেখো?
-দেখি,তুমি শাড়ি পড়ে আমার সামনে আসো,
-কি কালারের শাড়ি,
-কালো,
-ব্লাউজ কি ম্যাচিং?
-হুম ম্যাচিং,
-গলায় কি কোন গহনা থাকে?
-নাহ গলা খালি থাকে,
-কানের দুল জোড়া কেমন ছিল?
.
আমি টুম্পার প্রশ্ন গুলো শুনে অবাক হচ্ছি।
এগুলো শোনা কি জরুরী?
আমি ওকে ভালবাসি, ওর জানা উচিত আমি ওকে কতটা ভালবাসি।
আমার স্বপ্নে ও কিভাবে আসে এটা মোটেও জরুরী নয়।মেয়েরা নিজেদের সাজগোজের ব্যাপারে সিরিয়াস জানা ছিল না।
.
-কি হলো বলো?
-মনে নাই,
-কি ভালবাসো যে মনে নাই
-তোমার মুখের দিকে দেখতেই দিন যায়,কানের দিকে তাকানোর সময় পাইনি।
.
টুম্পা আমার কথা শুনে হাসলো।তারপর বলল,
-ও আচ্ছা। এর পরের বার স্বপ্নে আসলে ভালভাবে দেখবা,
-আচ্ছা, ঠিকাছে।
-তো রাখি,
-নাহ,রাখিওনা।
-কেন?
-উত্তর টা দিয়ে যাও?
-কিসের?
-আমি তোমাকে ভালবাসি।এর উত্তর টা?
-সেদিন দিয়েছিলাম তো উত্তর টা,
-কোন উত্তর?
-আচ্ছা কাল দেখা করে বলবো,
.
ফোন রেখে দিয়ে আমি উত্তর ভাবতে লাগলাম,তখনি মনে পড়লো টুম্পা বলে ছিল ও আমার সাথে চুটিয়ে প্রেম করবে।
আমি কি বোকা?
যাই হোক ও রাজীতো,,
.
পরের দিন বিকেলে পার্ক এ চলে গেলাম।
টুম্পা আসলো একটু পরে।তবে আমি ওকে দেখে অবাক হয়েছি, খুব অবাক।
ওকে দেখে মনে হয়েছে,আমি স্বপ্ন দেখছি।
কালো শাড়ি,ম্যাচিং ব্লাউজ। স্বপ্নে যা যা দেখতাম সবই ও পড়ে এসেছে।
.
টুম্পা যখন আমার সামনে এসে বসলো আমি চুপচাপ কিছুক্ষন ওর দিকে তাকিয়ে রইলাম। স্বপ্নের চাইতেও ওকে বেশি সুন্দর দেখাচ্ছে।
প্রেমে পড়লে আসলেই স্বপ্নের চাইতে বাস্তব টা বেশি সুন্দর লাগে।
.
আমার এক নাগাড়ে তাকিয়ে থাকা দেখে টুম্পা জিজ্ঞেস করলো,
-কি দেখো,
-তোমাকে?
-কেন?
-এজন্যই তুমি স্বপ্নের কথা জিজ্ঞেস করছ তাই না?
-হ্যাঁ,, তোমার স্বপ্নের মত সুন্দর লাগছেনা?
-তার চাইতে বেশি লাগছে।
-ধন্যবাদ।
.
আমি কিছুক্ষন চুপ করে থেকে বললাম,
-আমি স্বপ্নে আরো অনেক কিছু দেখেছি,সেগুলো বলা হয়নি।
.
টুম্পা জিজ্ঞাসু দৃষ্টি নিয়ে আমার দিকে তাকাল।
-আরো কি দেখছ?
-তুমি আমার হাত ধরে বসে আছ?
-তাই,
-হুম,
.
টুম্পা টুপ করে হাত ধরে ফেলল আমার।
-এরকম টা স্বপ্নে দেখছ,
-হুম,
-আর কিছু দেখছ?
-না মানে, একটা চুমুও খাইছিলাম,,
.
টুম্পা আমার হাত ছেড়ে দিয়ে বলল,
-প্রথম ডেটেই এত কিছু চাইলে হবে নাকি,একটু তো সবুর করো।
-আচ্ছা
.
তবে আমি অন্য সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছি,পরের ডেটে টুম্পাকে সোজা বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে দিবো। এত সবুর করতে পারব না।
স্বপ্নে যা যা দেখি সব অনেক দ্রুত বাস্তব করতে হবে।
.
ওহ টুম্পাকে স্বপ্নের আরেক টা কথা বলা হয়নি, স্বপ্নে আমাদের চারটা বাচ্চাও হয়েছিল।
জানিনা এটা শুনলে টুম্পা কি করবে?
.
.
-নাহিদ পারভেজ নয়ন

Download Best WordPress Themes Free Download
Free Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
Premium WordPress Themes Download
download udemy paid course for free
download samsung firmware
Premium WordPress Themes Download
udemy paid course free download
Share:

Leave a Reply

All rights reserved by Kid Max.